পুরুষের যৌন শক্তি বাড়ানোর ঘরোয়া কিছু উপায় - ১০০% কার্যকরী 


যৌন শক্তি একটি পুরুষের জন্য অমূল্য সম্পদ। বিভিন্ন সমস্যার কারণে অনকে পুরুষ তার যৌবন শক্তিকে হারিয়ে ফেলেছেন। যৌন বিশেষজ্ঞদের মতে পুরুষের যৌন শক্তি হারানোর বেশ কিছু কারণ উল্লেখ করেছেন। তার মধ্যে কিছু বদঅভ্যেস ও বয়ঃসন্ধির সময় অতিরিক্ত হস্তমৈথুন  কারণকে যৌন শক্তি কমে যাওয়ার মূল কারণ হিসেবে ব্যাখ্যা করেছেন। এছাড়াও আরো বেশ কিছু কারণ রয়েছে যেগুলোর কারণে পুরুষের পুরুষত্ব ও যৌবন শক্তি নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তবে সবচেয়ে ভয়ংকর ব্যাপার হল পুরুষদের মধ্যে অনেকে চক্ষু লজ্জার কারণে এই নিরব ব্যাধিকে বছর পর বছর নিজের মধ্যে গোপন রাখেন।


 অনেক সময় বাবা মা বিয়ে দিতে চাইলে মুখ ফিরিয়ে নেন। আবার কিছু কিছু সময় দেখা যায়- বাজারের হকার কিংবা বিভিন্ন হারবাল জাতীয় ঔষধ সেবন করেছেন কিন্তু তাতে কোন সুফল পাননি বরং আরো বেশি সমষ্যা পরেছেন। তাছাড়াও আর্থিক ভাবে নষ্ট করেছেন অনেক টাকা পয়সা।  তাই আমরা আজ আপনাদের সামনে তুলে ধরবো কিভাবে আপনি বাড়িতে বসে যৌবন শক্তির ঘরোয়া চিকিৎসা করতে পারবেন সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক ভাবে। এতে কোন ধরনের সমষ্যার সম্মুখীন বা প্বার্শপ্রতিক্রিয়া নেই। তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে ঘরে বসে আপনি আপনার মূল্যবান যৌবন শক্তি বাড়াবেন। 


এক.

খেজুর বা খোরমাঃ যৌন শক্তি বৃদ্ধিতে খেজুরের ভূমিকা অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ খেজুরে রয়েছে প্রচুর পরিমানে খনিজ উপাদান, যা মানবদেহে দ্রুত যৌবন শক্তি বৃদ্ধি করে। আমরা একটি বিষয় লক্ষ্য করলেই এর সঠিক ব্যাখ্যা পেয়ে যাবো। আরবের প্রধান খাদ্য হল খেজুর। সেখানকার পুরুষরা নিয়মিত খেজুর খান, যার কারণে আরবের পুরুষদের শরীরে ভরপুর যৌবন শক্তি। কিন্তু দুঃখজনক বিষয় হল আমাদের দেশে যেসব খেজুর পাওয়া যা সেগুলোর অধিকাংশে রাসায়নিক ক্যামিক্যাল মেশানো। কিছু অসাধু ব্যবসায়ি দীর্ঘ দিন খেজুর সংরক্ষণের জন্য বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহার করেন। এতে খেজুরগুলো দেখতে চকচকে উজ্জ্বল হলেও স্বাস্থ্যের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকর। তাই খেজুর কেনার সময় ভেবে চিন্তে দেখে শুনে ভাল মানের খেজুর কিনবেন। 


দুই.

কালো জিরাঃ কারো জিরাকে সকল রোগের মহৌষধ বলা হয়ে থাকে। পবিত্র কোরআনে কালো জিরার বিষয়ে বলা হয়েছে " মৃত্যু ব্যতিত সকল রোগের মহৌষধ হল কালো জিরা"। আপনার যেভাবে খুশি সেভাবে কালো জিরা সেবন করতে পারবেন। নিয়মিতভাবে কোন ব্যাক্তি কারো জিরা সেবন করলে তার শরীরে রোগ প্রতিরোধ  ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে। এছাড়াও কালো জিরার মধ্যে যে ক্ষনিজ উপদদান গুলো থাকে সেগুলো মানব দেহের বিভিন্ন রোগ ব্যাধিকে সারিয়ে শরীরকে সুস্থ সবল করে তোলে। এজন্য যে সকল ভাইয়েরা যৌবন শক্তি হারিয়ে ফেলেছেন,আপনার নিয়মিত ভাবে কালো জিরা সেবন করা শুরু করেন। দেখবেন অতি তারাতাড়ি এর সুফল পাবেন। 


তিন.

মধুঃ মধুর গুনাগুন বলা বাহুল্য। অতি প্রাচীন কাল থেকে মধু ব্যবহারের প্রচলন চলে আসছে। মধুতে খনিজ পদার্থ সহ নানা ধরনের পুষ্টি গুণ রয়েছে। নিয়মিত ভাবে মধু খেলে যৌবন শক্তি বৃদ্ধি পায়। বিভিন্ন ধর্ম গ্রন্থে মধু ব্যবহারে কথা বলা হয়েছে। নিয়মিত ভাবে মধু খেলে ব্রেন সুস্থ থাকে, মস্তিষ্ক ঠান্ডা রাখে, মানব দেহের মধ্যে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। এছাড়াও  দেহের ভিতরে থাকা নানান দুষিত পদার্থ গুলোকে বের করে দেয় মধু সেবনের মাধ্যমে। যদি কেউ চান হারোনো যৌন শক্তি ফিরিয়ে আনতে তাহলে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ১/২ চামচ পরিমাণ মধু সেবন করুন। দেখবে অতি তারাতাড়ি এর সুফল পেয়েছেন। 


চার.

দুধঃ দুধ পছন্দ করেন না এমন মানুষ খুব কম পাওয়া যায়। দুধ এমন একটি খাবার যে একমাত্র ভিটামিন সি ছাড়া সব ধরনের পুষ্টি গুণ  উপাদান পাওয়া যায়। কেউ যদি নিয়মিত ভাবে দুধ পান করেন তাহলে তার শরীর সব সময় সুস্থ সবল থাকবে। এছাড়াও প্রতিদিন পরিমাণ মত দুধ খেলে যৌবন শক্তি ফিরিয়ে আনতে যথেষ্ট ভূমিকা পালন করে। তবে বলে রাখা ভাল গরুর দুধের পাশাপাশি মহিষের কিংবা ছাগলের দুধও বেশ কার্যকরি। আপনি নিঃসন্দেহে মহিষ বা ছাগলের দুধ পান করতে পারবেন। 


পাঁচ.

ডিমঃ অনেকে সকালের নাস্তায় ডিমকে প্রথম তালিকায় রাখেন। আজকে তাদের জন্য রয়েছে একটি সুখবর। প্রতিদিন একটি করে সিদ্ধ ডিম খেলে এর চরম উপকার পাবেন, যা বলা বাহুল্য। কারণ ডিম একটি আদর্শ খাবার। ডিমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, ভিটামিন ও স্নেহ পদার্থ। যে সকল পুরুষরা নিজেকে দূর্বল ভাবেন এমনকি যৌন শক্তি স্হায়ী করতে চান তাহলে এখন থেকে নিয়মিত সিদ্ধ ডিম খাওয়ার অভ্যাস করুন। 


ছয়. 

কলাঃ কলা খেতে পছন্দ করেন না এমন মানুষ খুব কমেই আছে। কারণ আমাদের দেশের প্রায় সব জায়গায় বিভিন্ন জাতের কলা পাওয়া যায়। কলাতে রয়েছে ব্রমেলাই জাতীয় এক পদার্থ যা আমাদের শরীরে গিয়ে যৌন শক্তিকে আরো শক্তিশালী করে তোলে এমনি যৌন মিলনের সময় দীর্ঘ সময় বীর্য ধরে রাখতে কলার ভূমিকা অপরিসীম। এছাড়াও কলাতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ খনিজ উপাদান থাকে যে গুলো শরীরকে সব সময়  সুস্থ সবল রাখে। 


সাত.

আপেলঃ এটি একটি সুসাদু ফল। অধিকাংশ মানুষ আপেল খেতে পছন্দ করেন। একটি আপলে প্রচুর পরিমানে পুষ্টি গুণ থাকে। এজন্য চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দেন প্রতিদিন একটি করে আপেল খাওয়ার। নিয়মিত আপেল খেলে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে  এবং শরীর সুস্থ সবল রাখে। 


আট. 

পালংশাকঃ আমরা কম বেশি সকলেই পালং শাক খাই কিন্তু জানিনা পালংশাকের মধ্যে কি এমন পুষ্টি গুণ আছে। আবার অনেকে পালংশাক পছন্দ করেন না। তাহলে জেনে রাখুন পালংশাকে প্রচুর পরিমাণ ম্যাগনেসিয়াম থাকে যা শরীরে দ্রুত রক্ত চলাচলে সহায়তা করে। বিশেষজ্ঞরা মনে করেন পালংশাক যেহতে দ্রুত রক্ত চলাচলে সহায়তা করে সেহেতু পুরুষ পুরুষত্ব শক্তি আরো শক্তিশালী করে তোলে। 


নয়. 

রসুন ও পিয়াজঃ এ বিষয়ে নতুন কিছু বলার নেই। প্রাচীন কাল থেকে যৌন চিকিৎসায় পিঁয়াজ ও রসুনের ব্যবহার চলে আসছে। তবে পিয়াজ রসুন আমাদের দেশে তরকারিতে ব্যবহার করলে যৌবন শক্তি বাড়ানো জন্য একটু ভিন্ন ভাবে রসুন পিঁয়াজ ব্যবহার করতে হয়। অনেকে আবার রসুনকে গরীবের পেনিসিলিন বলে থাকেন। 


দশ.

ব্যায়ামঃ শরীরকে সুস্থ  সবল রাখতে ব্যায়ামের বিকল্প নেই। আমাদের মাঝে অনেকে আছেন যারা নিয়মিত ভাবে ব্যায়াম করেন। নিয়মিত সকালে ব্যায়াম করলে শরীরে মাংস পেশীগুলো অধিক কার্যকর ও শক্তিশালী হয়ে উঠে। এছাড়াও সঠিক নিয়মে নিয়মিত ব্যায়াম করলে যৌবন শক্তি আরো বৃদ্ধি পায়। এজন্য চিকিৎসকরা সব সময় পরামর্শ দেন সকালে ব্যায়াম বা হাটাহাটি করার জন্য। 


উপরোক্ত বিষয়গুলো ছাড়াও আরো অনেক খাদ্য রয়েছে যেগুলো যৌন শক্তি বৃদ্ধিতে দারুণ কার্যকর। যেমনঃ কাজুবাদাম, মিষ্টি আলু, গাজর, তরমুজ, স্ট্রোবেরী, কলিজা ইত্যাদি। তবে যাক হোক অবশ্যই মনে রাখবেন আপনি যেভাবেই চিকিৎসা পদ্ধতি নেন না কেন অবশ্যই বদঅভ্যেস ত্যাগ করতে হবে। তাহলে আপনি শতভাগ ফলাফল পাবেন। 

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন